Home >> পড়ালেখা >> ৩৭ তম বিসিএস প্রিলি প্রস্তুতি…

৩৭ তম বিসিএস প্রিলি প্রস্তুতি…

টপিক: ৩৪ তম বিসিএস প্রিলি তে আসা সাধারণ বিজ্ঞান অংশের ব্যবচ্ছেদ।

>>লিখেছেন- Arup Ratan, Dept. of English, SUST<<

১. নাইট্রোজেন গ্যাসকে একটি বিশেষ প্রক্রিয়ায় অ্যামোনিয়ায় রূপান্তরিত করা হয় এবং অ্যামোনিয়া থেকে ইউরিয়া সার উৎপন্ন করা হয়। উদ্ভিদ খাদ্য হিসেবে ইউরিয়া সার থেকে নাইট্রোজেনই গ্রহন করে। ইউরিয়া সারে নাইট্রোজেনের পরিমান ৪৬%।

২. প্রোটন ও নিউট্রন পরমানুর নিউক্লিয়াসে একত্রে অবস্থান করে। এদেরকে একত্রে নিউক্লিয়ন বলা হয়।

৩. লোহিত রক্তকনিকার সাইটোপ্লাজমের এক ধরনের লৌহঘটিত প্রোটিন জাতীয় রঞ্জক পদার্থ হিমোগ্লোবিন। এর মূল উপাদান প্রোটিন ও লৌহ। এর উপস্থিতির জন্য রক্তের রঙ লাল হয়। এর প্রধান কাজ অক্সিজেন পরিবহন করা।

৪. সুষম খাদ্যের ৬ টি উপাদান- শর্করা বা শ্বেতসার, আমিষ বা প্রোটিন, ফ্যাট বা চর্বি, ভিটামিন, খনিজ লবন ও পানি।

৫. মানব শরীরের অগ্ন্যাশয় বা প্যানক্রিয়াস গ্রন্থির আইলেটস অব ল্যাঙ্গারহ্যান্স নামক অংশ থেকে রক্তে শর্করা নিয়ন্ত্রণকারী হরমোন ইনসুলিন নিঃসৃত হয়।

৬. অতিরিক্ত খাদ্য হতে উৎপন্ন সুগার ভবিষ্যতের জন্য লিভার বা যকৃত সঞ্চয় করে রাখে। এ সুগার হলো গ্লাইকোজেন জাতীয় খাদ্য।

৭. জুওলজী- প্রাণীবিদ্যা, বায়োলজী- জীববিজ্ঞান, ইভোলিউশন- যে শাখায় প্রাণীর উৎপত্তি, বিকাশ সম্পর্কে আলোচনা করা হয়, জেনেটিক্স- প্রাণীজগতের উৎপত্তি ও বংশ সমন্ধীয় বিদ্যা।

৮. প্রতি ১০০ গ্রাম মসুর ডালে প্রোটিনের পরিমান ২৫.১ গ্রাম এবং গরুর মাংসে ২২.৬ গ্রাম প্রোটিন বিদ্যমান।

৯. হাড় ও দাঁত গঠন, মজবুত করা, রক্ত তঞ্চন, পেশী সংকোচন ইত্যাদি গুরুত্বপূর্ণ কাজ করে ক্যালসিয়াম ও ফসফরাস। আয়োডিন থাইরয়েড গ্রন্থির কর্মকাণ্ড নিয়ন্ত্রণ করে। আয়রন রক্তের হিমোগ্লোবিনের অন্যতম উৎস। ম্যাগনেসিয়াম শরীর গঠনে ভূমিকা পালন করে।

১০. মৃদু পানির প্রধান উৎস বৃষ্টিপাত। এর মাধ্যমে সবচেয়ে বেশি পরিমান মৃদু পানি পাওয়া যায়।

১১. যার রোধ যত কম তার বিদ্যুৎ পরিবাহিতা তত বেশি। রূপার রোধ সবচেয়ে কম তাই এর পরিবাহিতা সবচেয়ে বেশি।

১২. অতিরিক্ত খেসারীর ডাল খেলে পায়ের ল্যাথাইরিজম নামক রোগ হয়।

১৩. কোন বস্তুর তাপমাত্রা হ্রাস করলে এর ঘনত্ব বৃদ্ধি পায়। পানির একমাত্র ব্যাতিক্রমী প্রসারণ হচ্ছে পানির তাপমাত্রা কমিয়ে ৪ ডিগ্রি সেন্টিগ্রেড করলে এর ঘনত্ব বেশি হয় আর ৪ ডিগ্রি থেকে কমিয়ে আনলে এর ঘনত্ব হ্রাস পায়। ও ডিগ্রি তে পানি বরফে পরিণত হয় এবং ঘনত্ব কমে। পানির ঘনত্ব বরফের তুলনায় বেশি থাকার কারনে বরফ পানিতে ভাসে।

১৪। সুনামীর প্রধান কারন সমুদ্র তলদেশের ভূমিকম্প।

 

এই নিউজটি যদি আপনাদের ভালো লেগে থাকে তাহলে অবশ্যই আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে আমাদের সাথে থাকবেন ধন্যবাদ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.