Home >> পড়ালেখা >> IBA সম্পর্কে প্রয়োজনীয় তথ্যসমূহ

IBA সম্পর্কে প্রয়োজনীয় তথ্যসমূহ

প্রশ্নঃ আইবিএ কি?

ইনস্টিটিউট অব বিজনেস এডমিনেসট্রশন । এটি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে একটি স্বতন্ত্র প্রতিষ্ঠান যেখানে বিবিএ ও এমবিএ, এক্সিকিউটিভ এমবিএ, ডিবিএ পড়ানো হয়।

প্রশ্নঃ আইবিএ বলতে কি শুধু ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইবিএকেই বোঝায় ?

না, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে আইবিএ আছে, জাহাঙ্গীরনগরে আইবিএ আছে কিন্তু এখনও মানুষ আইবিএ বলতে ঢাকা বিশ্বদ্যিালয়ের আইবিএটাকেই বোঝে।

প্রশ্নঃ আইবিএতে কারা পড়তে পারে? যেকোন গ্রুপ থেকে (সাইন্স/আর্টস/কমার্স) এইচ এসসি পাশ করার পরে বিবিএতে আর যেকোন গ্রুপ থেকে (সাইন্স/আর্টস/ কমার্স) অনার্স/বিবিএ/বিএসসি/পাশ কোর্স করে এমবিএতে ভর্তী পরীক্ষা দেয়া যায়।

প্রশ্নঃ জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের/প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীরা কি এখানে পড়তে পারবে?

হ্যাঁ অবশ্যই পারেবে এবং এসব বিশ্ববিদ্যালয়ের অনেকেই এখানে পড়তেছে।

প্রশ্নঃ এখানে ভর্তীর যোগ্যতা কি?

বিবিএতে ভর্তীর যোগ্যতা: যেকোন গ্রুপ থেকে এসএসসিতে ৪.০০, এইচএসসিতে ৪.০০ ।

এমবিএতে ভর্তীর যোগ্যতা: যেকোন গ্রুপ থেকে এসএসসিতে ৩.০০, এইচএসসিতে ৩.০০ অনার্স এ সেকেন্ড ক্লাশ বা ২.৫০ হলেই হবে। লাস্ট ইনটেকে অনার্সে ২ পর্যন্ত এলাউ করেছে ।

প্রশ্নঃ ডিগ্রীর বা ন্যাশনাল ভার্সিটির, মাদ্রাসা ব্যাকগ্রাউন্ডের ছাত্র-ছাত্রীরা কি IBA-MBA করতে পারে?

হ্যাঁ পারে, ইন ফ্যাক্ট এটাই আইবিএর স্বতন্ত্র । যে কেউ আইবিএতে পড়তে পারবে । কোন ডিস্ক্রিমিনেশন নেই । একজন বুয়েটের ছেলেও হয়ত বাদ পড়তে পারে আবার একজন ঢাকার বাইরের কোন অখ্যাত কলেজ থেকে পাশ করা ছেলেও চান্স পেতে পারে যদি সে Admission Test এ ভাল করে।

প্রশ্নঃ আই বি এ র অধিকাংশই কি ইংলিশ মিডিয়ামের ?

এটা একটা পপুলার । বাট ঘটনা ঠিক উল্টোটা বিশেষ করে এমবিএর ক্ষেত্রে । অধিকাংশ ছেলে-মেয়েই বাংলা মিডিয়ামের ।

প্রশ্নঃ আইবিএর এমবিএতে কয় ধরনের এমবিএ আছে?

দুই ধরণের-রেগুলার এমবিএ আর এক্সিকিউটিভ এমবিএ রেগুলার এমবিএর আবার দুটো ধরণ আছে একটা পার্ট টাইম, যেটার ক্লাশ হয় সন্ধ্যায়, আর ফুল টাইম- এদের ক্লাশ হয় দিনের বেলায়, এছাড়া এক্সিকিউটিভ এমবিএর ক্লাশও রাতে হয়।

প্রশ্নঃ এক্সিকিউটিভ এমবিএর জন্য যোগ্যতা কি লাগে?

গ্রাজুয়েশন + কমপক্ষে ০৩ বছরের চাকুরীর অভিজ্ঞতা

প্রশ্নঃ এক্সিকিউটিভ এমবিএ আর রেগুলার এমবিএর মধ্যে পার্থক্য কি?

রেগুলার এমবিএর মোট কোর্স ২০টি, এক্সিকিউটিভ এমবিএ এর মোট কোর্স 15 টি, রেগুলার এমবিএ করতে সময় লাগে ২ বছর থেকে ৩.৫ বছর আর এক্সিকিউটিভ এমবিএ করতে সময় লাগে ১.৫ থেকে ২ বছর, রেগুলার এমবিএ পড়তে মোট খরচ ৮০ হাজার টাকার মত আর এক্সিকিউটিভ এমবিএ এর মোট খরচ ২.৫ লাখ প্রায়। রেগুলার এমবিএ করতে অভিজ্ঞতা লাগেনা আর এক্সিকিউটিভ এমবিএ করতে ০৩(তিন)বছরের ফুল টাইম জবের অভিজ্ঞতা থাকতে হবে।

প্রশ্নঃ রেগুলার এমবিএ আর এক্সিকিউটিভ এমবিএর মধ্যে ভাল কোনটা?

দুটোই ভাল, তবে রেগুলারটার ভ্যালু একটু বেশী । রেগুলারটা ফ্রেশ গ্রাজুয়েটদের জন্য আর এক্সিকিউটিভ টা ম্যানেজারিয়ল লেভেল এর জন্য ভাল।

প্রশ্নঃ এক্সামে কম্টিটিশন কেমন ভাই?

প্রতিযোগির সংখ্যা-রেগুলার এমবিএ: ৩০০০ থেকে ৩৫০০ হাজার । এক্সিকিউটিভ এমবিএ: .৫০০-৬০০ আসলে কত জন এক্সাম দিচ্ছে এটা ফ্যাক্টর না । কারা দিচ্ছে এটা ফ্যাক্টর । কোন লেভেলের ক্যান্ডিডেটরা দিচ্ছে এটা ফ্যাক্টর । এখানে মেইন কম্পিটিশন হয় ব্যাসিকালী ৬০০-৭০০ স্টুডেন্টদের মধ্যে । এদের মধ্যে আছে ঢাবি, বুয়েটসহ অন্যান্য সরকারি ও বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের টপ গ্রাজুয়েটরা ।

প্রশ্নঃ রেগুলার এমবিএর ক্লাশ কবে কবে হয়?

সপ্তাহে চারদিন ক্লাশ থাকে, আর এটা নির্ভর করবে একটা সেমিস্টার এ আপনি কি কি সাবজেক্ট নিবেন।

প্রশ্নঃ এখানে কতবার পরীক্ষা দেয়া যায়?

যতবার ইচ্ছা দিতে পারবেন।

প্রশ্নঃ ভর্তী পরীক্ষা বছরে কতবার অনুষ্ঠিত হয়?

বিবিএ: বছরে ০১(এক) বার-ডিসেম্বর মাসে

রেগুলার এমবিএ: বছরে দুইবার জুনে একবার আর ডিসেম্বরে

এক্সিকিউটিভ এমবিএ: বছরে তিন বার, জানুয়ারি-এপ্রিল- অক্টোবর

প্রশ্নঃ আসন কত?

বিবিএ: ১২০টি রেগুলার এ

এমবিএ: জুনে ৬০ জন আর ডিসেম্বরে ১২০ জন

এক্সিকিউটিভ এমবিএ: প্রতিবার ৪০ জন করে। বছরে মোট ১২০ জন

প্রশ্নঃ আইবিএ থেকে পাশ করলে চাকুরীর নিশ্চয়তা কি?

পাশ করার আগেই হয়ত চাকুরী হয়ে যাবে ।

প্রশ্নঃ যারা আইবিএর বিবিএ করে তাদেরও কি আবার এমবিএতে ভর্তী পরীক্ষা দিতে হয় নাকি সরাসরি ভর্তি হয়?

আইবিএতে সবাইকেই ভর্তি পরীক্ষা দিতে হয়।

Leave a Reply

Leave a Reply

Your email address will not be published.